President

সড়কপথে ভুল বাসে উঠলে মাঝপথে নেমে যাওয়ার ‘আক্কেলসেলামি’ দিতে হয়। জলপথে ভুল লঞ্চ বা স্টিমারে উঠলে মাঝপথে অন্তত নৌকায় নেমে যাওয়ার সুযোগটুকু থাকে। কিন্তু আকাশপথে কেউ যদি এ কাণ্ড করে বসেন তখন! বলতে পারেন, তা কীভাবে সম্ভব? বিমানবন্দরে কয়েকটি তল্লাশি স্তর পেরিয়ে কীভাবে ভুল বিমানে ওঠা সম্ভব? বিশ্বাস করুন আর না-ই করুন, লস অ্যাঞ্জেলেস বিমানবন্দরে মঙ্গলবার ঠিক এ কাণ্ডই ঘটেছে।
লস অ্যাঞ্জেলেস বিমানবন্দর থেকে বেলা সাড়ে ১১টায় টোকিওর উদ্দেশে উড়াল দিয়েছিল অল নিপ্পন এয়ারওয়েজ (এএনএ) ফ্লাইট ১৭৫। মোট ১১ ঘণ্টা ভ্রমণসময়ের ফ্লাইটটি আকাশপথে চার ঘণ্টা উড়াল দেওয়ার পর প্রশান্ত মহাসাগরের ওপর থেকে ‘ইউ-টার্ন’ নিয়ে আবারও ফিরে আসে লস অ্যাঞ্জেলেস বিমানবন্দরে! যাত্রীরা জানতে পারেন, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের টিকিট নিয়ে এক ব্যক্তি ভুল করে সেই বিমানে উঠেছে। বিমানটিকে তাই অগত্যা ফিরিয়ে আনা হয়।
বিমানে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের খ্যাতনামা মডেল ও টিভি ব্যক্তিত্ব ক্রিস্টিন টেইগেন এবং তাঁর সুরকার স্বামী জন লিজেন্ড। ফেরার সময় টেইগেন টুইট করেন, ‘ফ্লাইট টু নোহোয়ার।’ তাঁর কাছ থেকে বিবিসি জানিয়েছে, কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিশ্চিত না করলেও বিমানে যে ভুল টিকিটের ব্যক্তি উঠেছিলেন, তা নিশ্চিত। অবশ্য অ্যাভিয়েশন কর্তৃপক্ষের সূত্র দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, ‘প্রশাসনিক ভুলে’র জন্য ২২৬ জন যাত্রীবাহী বিমানটি লস অ্যাঞ্জেলসে ফিরে এসেছে।
তবে বিমানের ক্রু এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সূত্র মারফত আসল ঘটনা জানিয়েছে সিএনএন। সেটা হলো, টোকিওগামী দুই ভাই আলাদা দুটি ফ্লাইটে টিকিট বুকিং দিয়েছিলেন। কিন্তু অল নিপ্পন এয়ারওয়েজের কর্মীরা ভুল করে একই ফ্লাইটে দুই ভাইকে পাঠান। বিমান উড়াল দেওয়ার পর এক ক্রু ধরতে পারেন, ফ্লাইটে একজন অবৈধ যাত্রী আছেন! সেটা আসলে ওই দুই ভাইয়ের একজন, যাঁর কাছে ছিল নিপ্পনেরই আরেকটি ফ্লাইটের টিকিট।
পরে বিমানটির টোকিও যাওয়ার সময় পুনর্নির্ধারিত করা হলেও ঘটনাটি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে এএনএ কর্তৃপক্ষ। যাত্রীদের কাছে ক্ষমা চেয়ে তাঁরা বলেছে, ‘গ্রাহকসেবায় আমরা গর্ব করলেও এই ফ্লাইটে সেটা করতে ব্যর্থ হয়েছি।’

৩১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২২:২৫ পি.এম