President

ক্লাসরুমের দেয়ালটা কাঠ আর কাচের। স্বচ্ছ কাচের ওপাশে দেখা গেল, কয়েকজন চোখ মুছছেন। একটু পর আবার তাঁদের মুখে হাসি। হচ্ছেটা কী? ক্লাস শেষ হওয়ার পর একজন বললেন, ‘আর্ট অব লিভিং ক্লাস করছিলাম তো, তাই।’ ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির পাঠক্রমেরই একটি অংশ এই ‘আর্ট অব লিভিং’ ক্লাস। বাস্তব উদাহরণ দিয়ে শিক্ষকেরা এই ক্লাসে এমনভাবে পড়ান, অনেক শিক্ষার্থীই নাকি আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। নীতি-নৈতিকতা, মূল্যবোধ, আচার-আচরণ থেকে শুরু করে পারিবারিক বা প্রাতিষ্ঠানিক সম্পর্ক কেমন হওয়া উচিত, সবকিছুই শেখানো হয় এই বিষয়ের ক্লাসে। কারণ, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির চেয়ারম্যান সবুর খান বললেন, তাঁদের লক্ষ্য হলো শিক্ষার্থীদের মানুষের মতো মানুষ বানানো; নম্বর ছেপে সনদ ধরিয়ে দেওয়া নয়।

আশুলিয়ার দত্তপাড়ায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিশাল সবুজ ক্যাম্পাস। ধানমন্ডি ও উত্তরার ক্যাম্পাসেও চলে পাঠদানের কার্যক্রম। শেষ হিসাব অনুযায়ী মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২০ হাজার ছাড়িয়েছে। স্বপ্ন নিয়ের এবারের আয়োজন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি নিয়ে।

পড়ালেখায় আধুনিকতা
এখানে পাঁচটি অনুষদের আওতায় আছে মোট ২৫টি বিভাগ। ভর্তি তথ্যকেন্দ্র থেকে জানা গেল, বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি অনুষদের অন্তর্ভুক্ত কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল (সিএসই) বিভাগে সবচেয়ে বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি হয়। বাকি চারটি অনুষদ হচ্ছে ব্যবসা ও অর্থনীতি, মানবিক ও সমাজবিজ্ঞান, প্রকৌশল এবং ‘অ্যালাইড হেলথ সায়েন্সেস’। স্নাতকের পর ১৩টি বিষয়ে স্নাতকোত্তর করার সুযোগ আছে। সফটওয়্যার বিভাগের নওরীন নুহা বলেন, ‘সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমাদের পড়ানোর জন্য শিক্ষকেরা “গুগল ক্লাসরুম” ব্যবহার করেন। গুগল ক্লাসরুমে শিক্ষকেরা লেকচারশিটগুলো আপলোড করে দেন। কিছু বুঝতে অসুবিধা হলে বাসায় বসেও আমরা লেকচারগুলো দেখে নিতে পারি। কখনো কখনো ইউটিউবের ভিডিও দেখিয়ে আমাদের শেখানো হয়।’ গতানুগতিক মুখস্থ করার ধারা থেকে বের হয়ে এসে কীভাবে প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে জ্ঞান অর্জন করা যায়, সেটার চর্চা হয় ক্লাসরুমে। শিক্ষার্থীর আচরণ ও পরীক্ষার ফলাফলের ওপর নির্ভর করে ভর্তির এক বছর পর বিনা মূল্যে তাঁদের ল্যাপটপ দেওয়া হয়।

৩১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২৩:৪৯ পি.এম