President

হবিগঞ্জে চিত্রনায়ক শাকিব খানের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও মানহানি মামলায় ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ বুধবার মামলার নির্ধারিত তারিখে বাদীর আইনজীবীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শম্পা জাহান এ নির্দেশ দেন।

অটোরিকশা চালক ইজাজুলের দায়ের করা এ মামলায় আজ প্রতিবেদন দাখিলের নির্ধারিত দিন ছিল।
বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট এম এ মজিদ জানান, মামলার প্রতিবেদন না আসায় তিনি তদন্তকারী কর্মকর্তাকে এর কারণ দর্শানোর জন্য আদালতে আবেদন করেন। পরে আদালত শুনানি শেষে আদেশ দেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির উপপরিদর্শক (এসআই) ইকবাল বাহার জানান, তদন্ত কাজ এগিয়ে চলেছে। মামলার প্রধান আসামি শাকিব খান দেশে না থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া যাচ্ছে না। এ কারণে তদন্তে বিলম্ব হচ্ছে।

শাকিব খান বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় আশিকুর রহমান পরিচালিত ‘সুপার হিরো’ ছবির শ্যুটিংয়ে ব্যস্ত বলে জানা গেছে।
গত বছরের ২৯ অক্টোবর ৫০ লাখ টাকার মানহানির অভিযোগ এনে হবিগঞ্জ আদালতে মামলাটি করেন হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার ইজাজুল মিয়া। এর আগে শাকিবভক্তদের মোবাইল ফোনে অতিষ্ঠ হয়ে ইজাজুল ২৮ অক্টোবর বানিয়াচং থানায় ‘রাজনীতি’ ছবির প্রযোজক আশফাক আহমেদ ও পরিচালক বুলবুল বিশ্বাসের বিরুদ্ধে একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

শাকিব খান ‘রাজনীতি’ ছবিতে নায়িকা অপু বিশ্বাসকে মোবাইল ফোনের একটি নম্বর দেন। একই নম্বর ব্যবহার করেন বানিয়াচং উপজেলার যাত্রাপাশা গ্রামের মোবারক মিয়ার ছেলে অটোরিকশা চালক ইজাজুল। ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর ইজাজুলের নম্বরে একের পর এক ফোন আসতে থাকে। এতে পীড়িত ও বিব্রত হন তিনি।

০৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ২০:৪২ পি.এম